“মানুষ অভ্যাসের দাস” ছোটকাল থেকেই এই উক্তিটা শোনে আমরা বড় হয়েছি। আমরা মানুষ এবং আমরা প্রত্যেকেই কোন না কোন অভ্যাসে অভ্যস্ত। সেটা হতে পারে খারাপ অভ্যাস কিংবা ভাল। আমরা যদি দেখি কোন মানুষের একটা ভাল অভ্যাস আছে (আমার মনে হয় ভাল অভ্যাসের কোন উদাহারণ আমাকে দিতে হবেনা। কারণ আমরা প্রত্যেকেই কোনটা ভাল এবং কোনটা খারাপ অভ্যাস সেটা বুঝার ক্ষমতা রাখি।) তাহলে আমরা সেই অভ্যাস ভালভাবে গ্রহণ করি বা সেটার প্রশংসা করি। আর খারাপ অভ্যাস দেখলে সেটা অপছন্দ করি বা সেই অভ্যাস ছাড়ার পরামর্শ দিই। ত আজকে সেই অভ্যাস নিয়েই আমাদের আলোচনা সাজিয়েছি। তবে ভাল অভ্যাস নিয়ে নয় আমরা আজকে আমাদের খারাপ অভ্যাসগুলোকে ইংরেজীতে কিভাবে ব্যখ্যা করা হয় সেটা জানব।
তাহলে চলুন শুরু করি।

পড়ে নিন ইংরেজিতে কি গালি রয়েছে এখানে ক্লিক করে

Bitting nails: (নক কামড়ানো)।
নক কামড়ানো একটা বদ অভ্যাস। ছোট বেলায় আমাদের অনেকের এই অভ্যাস ছিল। বড় হলে আস্তে আস্তে এই অভ্যাস চলে যায়।

Spitting: (কারো গায়ে হাসতে হাসতে কুলি করা)।
মাঝে মাঝে আমরা হাসির এমন পার্যায়ে চলে যায় তখন আর নিজেকে সামলাতে পারিনা। তখন মুখে যদি কোন খাবার বা পানি থাকে সেই মুখের বস্থু সামনের লোকের গায়ে কুলি করে দিই। এটা খুব বাজে অভ্যাস।

Tapping Fingers: (আঙ্গুলে উপর আঙ্গুল দিয়ে আওয়াজ করা)।
হয়ত কোথাও একা বসে থাকলে আমরা আঙ্গুলের উপর আঙ্গুল দিয়ে আওয়াজ করি। এতে পাশে কেউ বসা থাকলে তার অসুবিধা হয়।

Tapping Feet: (পা দিয়ে আওয়াজ করা)।
কোথাও বসলে পায়ের জুতা দিয়ে ফ্লোরে টক টক করে আওয়াজ করার অভ্যাস অনেকের আছে। এটাও একটা বদ অভ্যাস।

Chewing Pencil:(পেন্সিল কামড়ানো)।
ক্লাসরুমে বা কোথাও বসে থাকলে আমাদের হাতে যদি কলম থাকে তখন আমরা সেই কলম মুখে দিয়ে কামড়াতে থাকি। এটাও একটা বদ অভ্যাস।

Snoring: (নাক ডাকা)।
এটা হয়ত অনেকেই জানেন। অনেকেরই এই অভ্যাস থাকে। এতে পাশের লোকের ঘুমাতে সমস্যা হয়।

Picking Nose: (নাকে আঙ্গুল দিয়ে নাড়া)।
কিছু মানুষ আছে যারা সবসময় নাকে আঙ্গুল দিয়ে নাড়তে থাকে। এই দৃশ্যটা অন্যের কাছে অনেক বিশ্রী দেখায়।

Drooling: (ঘুমানোর সময় মূখ দিয়ে লালা পড়া)।
অনেকের ঘুমানোর সময় মূখ দিয়ে লালা পড়ে বালিশ ভিজে যায়। ব্যাপারটা দেখতে অনেক খারাপ দেখায়।

Cracking Knuckles: (আঙ্গুল ফোটানো)।
আঙ্গুল ফোটানোটাও একটা বদ অভ্যাস। অফিসে বসের সামনে আঙ্গুল ফোটানো একটা অপরাধ।

Being a Chatterbox: (অবিরত কথা বলা)।
কিছু কিছু মানুষ আছে যারা কথা বলা শুরু করলে আর থামানো যায়না। এটা অনেকের কাছে বিরক্তিকর।

Gringding Teeth: (দাঁত দিয়ে আওয়াজ করা)।
কেউ আছে দাত দিয়ে আওয়াজ করতে থাকে। এটা পাশের কেউ শোনলে তার বিরক্তি আসে।

Swearing: (শপথ করা)।
কিছু লোক আছে যারা কথায় কথায় শপথ করে। এই শপথ করাটা একটা বদ অভ্যাস।

To slurp: (পানীয় খেতে আওয়াজ করা)।
আমরা চা খাওয়ার সময় অনেকেই আওয়াজ করে চা খাই এমন কি কোন পানিয় খাওয়ার সময়ও আওয়াজ করে খাই। এটা একটা বিশ্্রী ব্যাপার।

Speak with mouth full: (মুখে খাবার নিয়ে কথা বলা)।
আমার কাছে পৃথিবীর সবচেয়ে বিশ্রী দৃশ্য হল যখন কেউ মূখে খাবার নিয়ে কথা বলতে থাকে। এটা জঘন্য বদ অভ্যাস।

Eating fast:(দ্রুত খাওয়া)।
অনেকেই আছে যারা খেতে বসলে খুব দ্রুত খেয়ে শেষ করে ফেলে। এটাও একটা বদ অভ্যাস।

Picking nose and eating: (নাকের কাদা খাওয়া) ।
এই অভ্যাসটা সাধারণত ছোট বাচ্চাদের কাছে বেশি দেখা যায়। নাকের ভিতর আঙ্গুল দিয়ে নাকের কাদা বের করে সেটা মূখে দেওয়া।

Wirling hair: (আঙ্গুলে চুল জড়িয়ে নেয়া)।
আমার মনে হয়না এটা একটা বদ অভ্যাস। কথ কবি মেয়েদের এই আঙ্গুল দিয়ে চুল জড়িয়ে নেওয়া নিয়ে কবিতা লিখেছেন। দৃশ্যটা দেখতে আমারও সুন্দর লাগে। তারপরও এটা বদ অভ্যাস।

Coursing: (গালি দেওয়া)।
গালি দেওয়াটা বদ অভ্যাস আমরা সবাই জানি। তাই এটা আমরা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করব।

Being a slacker: (নিজের কাজ অন্যকে দিয়ে করানো)।
নিজের কাজ অন্যকে দিয়ে করনো এটাও একটা বদ অভ্যাস।

Phubbing: (নিজের ফোন নিয়ে ব্যস্ত থাকা)।
বিশেষ করে যুবকরা এই অভ্যাসে বেশি অভ্যস্ত। কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজের মধ্যেও তারা মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত থাকে।

আমরা সবাই নিজের অজান্তে কোন না কোন বদ অভ্যাসে অভস্ত। হয়ত সেই অভ্যাসটা আমার এখানে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। তারপরও আমাদের যত বদ অভ্যাস আছে, যে অভ্যাস আমাদের আশেপাশের মানুষকে কষ্ট দেয়, বিরক্ত করে, অস্বস্তিতে ফেলে সেই অভ্যাস ত্যাগ করার চেষ্ট করব। আজকে এই পর্যন্তই। সবাই ভাল থাকবেন। ধন্যবাদ।